সরকারি হলো আরও ১৯ টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়

27
শিক্ষা সংবাদ

নতুন করে আরো ১৯টি বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় সরকারি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১১ অক্টোবর) থেকে এসব প্রতিষ্ঠানকে সরকারিকরণের আদেশ জারি করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ।

সর্বশেষ ৯ অক্টোবর ২৫টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় সরকারি করা হয়। এ নিয়ে সারাদেশে সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সংখ্যা ৩৫০ ছাড়িয়ে গেলো।

বৃহস্পতিবার সরকারি হওয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলোর মধ্যে রয়েছে- শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলার জাজিরা মোহর আলী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়, নওগাঁর রানীনগর উপজেলার রানীনগর পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়, একই জেলার মান্দা উপজেলার গোটহাড়ী শহীদ মামুন হাই স্কুল ও কলেজ, সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরের শাহজাদপুর মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়।

এছাড়া বরগুনার বামনা উপজেলার সারওয়ার জান পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়, বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার শিবগঞ্জ পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়, শরীয়তপুরে নড়িয়া উপজেলার নড়িয়া বিহারী লাল পাইলট (মডেল) উচ্চ বিদ্যালয়, শেরপুরের নকলা উপজেলার নকলা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়, একই জেলার ঝিনাইাগাতী উপজেলার ঝিনাইগাতী মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়, পিরোজপুরের নেছারাবাদের (স্বরূপকাঠী) স্বরূপকাঠী পাইলট মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়, নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার মুড়াপাড়া পাইলট মডেল হাইস্কুল।

দিনাজপুরের বেচাগঞ্জ উপজেলার সেতাবগঞ্জ পাইলট মডেল উচ্চ হাইস্কুল, টাঙ্গাইলের সখিপুর উপজেলার সখীপুর পিএম পাইলট মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, নরসিংদীর মনোহরদী উপজেলার মনোহরদী পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়, গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার শ্রীপুর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়, মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলার সিংগাইর মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়, পটুয়াখালীর দুমকি উপজেলার লেবুখালী হাবিবুলাহ মাধ্যমিক বিদ্যালয়, মানিকগঞ্জের দৌলতপুর উপজেলার দৌলতপুর পিএস মডেল উচ্চ বিদ্যালয় এবং সিরাজগঞ্জের বেলকুচি উপজেলার সোহাগপুর এস কে পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়।

আদেশে বলা হয়েছে, সরকারি হওয়া এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা অন্য স্থানে বদলি হতে পারবেন না।

প্রসঙ্গত, এর আগে গত ৯ অক্টোবর ২৫টি, ২৭ সেপ্টেম্বর ২৫টি, গত ২৪ সেপ্টেম্বর ৪৩টি, ১৬ সেপ্টেম্বর একটি, গত ১৪ মে ৪৪টি, ২৮ আগস্ট ১২টি, ৭ মে ১২টি, ২১ মে ২৪টি, গত ১১ এপ্রিল ২১টি বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় সরকারি করা হয়েছে।

সরকারি হলো আরও ১৩ মাধ্যমিক বিদ্যালয়। মঙ্গলবার (৯ অক্টোবর) থেকে থেকে এসব প্রতিষ্ঠানকে সরকারি করে আদেশ জারি করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ।

সরকারি হওয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলো হলো-

  • রাঙ্গমাটির নানিয়ারচর উপজেলার নানিয়ারচর মডেল উচ্চ বিদ্যালয়,
  • বরকল উপজেলার বরকল মডেল উচ্চ বিদ্যালয়,
  • খাগড়াছড়ির গুইমারা উপজেলার গুইমারা মডেল হাই স্কুল,
  • বাগেরহাটের মংলা উপজেলার টি এ ফারুক স্কুল অ্যান্ড কলেজ ও
  • শরণখোলা উপজেলার রায়েন্দা পাইলট হাই স্কুল,
  • রংপুরের কাউনিয়া উপজেলার কাউনিয়া মোফাজ্জল হোসেন মডেল উচ্চ বিদ্যালয়,
  • যশোরের কেশবপুর উপজেলার কেশবপুর পাইলট মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়,
  • বরিশালের হিজলা উপজেলার সংহতি পাইলট মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়,
  • খুলনার কয়রা উপজেলার কয়রা মদিনাবাদ মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও
  • বালঘাটা উপজেলার জলমা চরকাখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়,
  • মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলার কালকিনি পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়,
  • ফরিদপুরের সালথা উপজেলার সালথা মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয় এবং
  • কুমিল্লার মনোহরগঞ্জ উপজেলার মনোহরগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ।

আদেশে বলা হয়েছে, সরকারি হওয়া এসব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা অন্যত্র বদলি হতে পারবেন না।

এর আগে গত ২৭ সেপ্টেম্বর ২৫টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়কে সরকারি করা হয়। এ ছাড়া গত ২৪ সেপ্টেম্বর ৪৩, ১৬ সেপ্টেম্বর একটি, ২৮ আগস্ট ১২, ২১ মে ২৪, ১৪ মে ৪৪, ৭ মে ১২ এবং ১১ এপ্রিল ২১টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় সরকারি করা হয়।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সাল থেকে স্কুল ও কলেজ সরকারিকরণের জন্য তালিকাভুক্তির কাজ শুরু করে সরকার। প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী সারাদেশে ৩২৫টি বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়কে সরকারি করা হবে। এর অংশ হিসেবে সর্বশেষ মঙ্গলবার (৯ অক্টোবর) ১৩টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় সরকারি করা হলো।

দেশের বিভিন্ন উপজেলায় নতুন করে আরও ১২টি বেসরকরি মাধ্যমিক বিদ্যালয়কে জাতীয়করণ করা হয়েছে। বর্তমানে পুরাতন ও জাতীয়করণ মিলে সারাদেশে সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মোট সংখ্যা দাঁড়ালো ৪৭৫টি। মঙ্গলবার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব লুৎফুন নাহার স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত এক আদেশ জারি করা হয়েছে।

সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী প্রতিটি উপজেলায় যোগ্য ও ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণ কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় আরও ১২টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় জাতীয়করণ করা হয়েছে।

নতুন জাতীয়করণ হওয়া ১২টি প্রতিষ্ঠান হচ্ছে-

  • ক্ষেতলাল পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ,
  • কালাই এম ইউ উচ্চ বিদ্যালয়,
  • ভৈরব কে বি পাইলট মডেল হাই স্কুল
  • মহেশ চন্দ্র মহেল শিক্ষা নিকেতন,
  • উল্লাপাড়া মার্চেন্টস পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়,
  • কালিয়া পাইলট মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়,
  • নিকলী জি সি পাইলট মডেল পাইলট স্কুল অ্যান্ড কলেজ
  • হোসেনপুর মডেল পাইলট স্কুল অ্যান্ড কলেজ,
  • ডামুড্যা মুসলিম উচ্চ বিদ্যালয়,
  • পুঠিয়া পি এন উচ্চ বিদ্যালয়,
  • আক্কেলপুর এফ ইউ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় এবং
  • সোনাতলা মডেল উচ্চ বিদ্যালয়।

সরকারি নির্দেশনায় বলা হয়েছে পর্যায়ক্রমে এসব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের জাতীয়করণ করা হবে। তাই এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বর্তমানে কর্মরত কোনো শিক্ষক অন্যত্র বদলি হতে পারবেন না।

উল্লেখ্য, এর আগে সারাদেশে মোট ৪৬৩টি সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ছিল। এর মধ্যে পুরাতন ৩৩৩টি এবং ১২টি মডেল বিদ্যালয়সহ জাতীয়করণ হওয়া ১৩০টি বিদ্যালয় রয়েছে। বর্তমানে নতুন ১২টি বিদ্যালয়সহ এই সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ৪৭৫টিতে।