শিক্ষার্থীদের ‘রাজাকারের বাচ্চা’ গালি দেয়ায় আওয়ামীলীগ নেতাকে গণধোলাই

11

রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কে দুর্ঘটনায় দুই শিক্ষার্থীর নিহতের ঘটনায় নিরাপদ সড়ক ও চালকদের দ্রুত বিচারের দাবিতে অবরোধ করেছে নারায়ণগঞ্জ সম্মিলিত কলেজ ছাত্র জনতা পরিষদের সড়ক ও রেলপথ অবরোধের কারনে রীতিমত অচল হয়ে পড়েছে গোটা নারায়ণগঞ্জ নগরী।

৯ দফা দাবীতে নারায়ণগঞ্জে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ‘রাজাকারের বাচ্চা’ গালি দেয়ায় গণধোলাইয়ের শিকার হলেন, মহানগর আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও হিন্দু বৌদ্ধ খ্রীস্টান ঐক্য পরিষদ জেলা সভাপতি কমান্ডার গোপীনাথ দাস। বুধবার ( ১ আগষ্ট ) দুপুরে শহরের চাষাড়া রাইফেল ক্লাবের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা জানান, রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কে দুই স্কুল শিক্ষার্থী সড়ক দূর্ঘটনায় নিহতের ঘটনায় ৯ দফা দাবীতে বুধবার সকাল থেকে আমরা নগরীর রাস্তা অবরোধ করে বসে আছি। এ সময় কমান্ডার গোপীনাথ লিংক রোড থেকে রিক্সায় করে চাষাড়া চত্ত্বর দিয়ে যেতে চাইলে আমরা তাকে রিক্সা ছেড়ে হেঁটে যেতে বলি।

https://i.imgur.com/6cXon7E.jpg

এ সময় তিনি পরিচয় দিলে আমরা তাকে স্বসম্মানে যেতে দিই। এর আধা ঘন্টা পর সে আবারও রিক্সায় করে যেতে চাইলে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা বাধা দেয়। বাঁধা দেওয়ায় এক পর্যায়ে তিনি আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের কে ‘রাজাকারের বাচ্চা’ বলে গালাগালি করে। এ সময় আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা তাকে টেনে হিঁচড়ে রিক্সা থেকে নামিয়ে উত্তম মাধ্যম দেয়।

আরও দেখুনঃ নারায়ণগঞ্জে শিক্ষার্থী দেখলেই পরিবহন শ্রমিকদের হামলা!

শিক্ষার্থীদের দ্বারা লাঞ্ছিত হয়ে গোপীনাথ পরে দৌঁড়ে গিয়ে চাষাড়া সুগন্ধা ফাস্টফুডের দোকানে ঢুকে গেলে তারা বাহির থেকে ইট পাটকেল মারতে থাকে। পরে সে বের হয়ে রবিন ফার্মেসিতে গিয়ে আশ্রয় নেয়। এ সময় গোপীনাথ তার মন্তব্যের জন্য আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করে। পরে স্থানীয় লোকজন এসে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের বুঝিয়ে শুনিয়ে তাকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়।