এক সেটে সারা দেশে প্রশ্ন, ফাঁস হলে বাতিল

13
শিক্ষা সংবাদ

এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় সারা দেশে একই প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা নেওয়া হবে। কোনো পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁসের প্রমাণ পাওয়া গেলে সেটি বাতিল করে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে বৃহস্পতিবার (২৫ জানুয়ারি) সচিবালয়ে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের সভাপতিত্বে জাতীয় মনিটরিং কমিটর সভায় এ তথ্য জানানো হয়।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আমরা পরীক্ষার সময় প্রশ্ন ফাঁসের ব্যাপারে খুবই ডেসপারেট, খুবই অ্যাগ্রেসিভ। আমাদের দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে। এছাড়া আর উপায় নেই।

আগে বিজি প্রেস থেকে প্রশ্ন আউট হতো জানিয়ে নাহিদ বলেন, এখন সেখান থেকে নিরাপদ।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ৩০ মিনিট আগে প্রশ্নপত্রের খাম খোলা যাবে না। এ জন্য সংশ্লিষ্টদের বলে দেওয়া হয়েছে, টিম করে দেওয়া হবে। তারা দেখে আসবেন খাম খোলা হচ্ছে কি না।

কোচিং সেন্টারগুলো প্রশ্ন ফাঁস করবার একটা আখড়া মন্তব্য করে মন্ত্রী বলেন, ওখানে প্রশ্ন ফাঁস করতে পারলে বেশি ছাত্র আকৃষ্ট করে বেশি টাকা ইনকাম হয়। এগুলো সাত দিন আগে থেকেই বন্ধ রাখা হবে। এতোদিন তিন দিন রাখা ছিল।

মোবাইল ফোনের মাধ্যমে প্রশ্ন ফাঁস বা মিথ্যা প্রচার হয় উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, আমরা এবার কাউকে ছাড়বো না। কেন্দ্রে শুধু একটি কথা বলা যায় এমন ফোন রাখা যাবে। এর বাইরে কেউ কোনো ফোন নিতে পারবে না।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কীভাবে নিয়ন্ত্রণ করা যায় কর্তৃপক্ষ তা ভাববেন জানিয়ে নাহিদ বলেন, আমরা তা এখানে আলোচনা করতে চাই না।

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান বলেন, বাস্তব কারণে ইউনিফাইড সিস্টেমে সারা দেশে একই প্রশ্নে পরীক্ষা নিতে যাচ্ছি।

এতে বেশি ঝুঁকি সৃষ্টি হবে কিনা- প্রশ্নে সচিব বলেন, আমরা এই ঝুঁকিটা নিচ্ছি বিভিন্ন কারণে। অনেক সময় অনেকে আমাদের অভিযুক্ত করছেন এবং বলছেন যে বিভিন্ন বোর্ডে বিভিন্ন রকম প্রশ্নের মানের প্রশ্ন আসছে। সারা দেশে এ মানের পরীক্ষা নেওয়া হচ্ছে না, এটা যেন অতিক্রম করতে পারি সে জন্য এ ব্যবস্থা।

‘আমরা ঝুঁকি এবার পুরোপুরিই নিচ্ছি, কোনো অবস্থাতেই যদি ফাঁস প্রশ্নে পরীক্ষা হয় তাহলে আমরা বাতিল করবো। কোনো অবস্থাতেই যদি কেউ ফাঁস হওয়া প্রশ্নে আনন্দিত হন, তাহলে তার জন্য সংবাদ হচ্ছে সেই পরীক্ষাটি বাতিল হবে।’

সচিব বলেন, যদি এরকম ঘটনা ঘটে, প্রশ্ন আগেই আউট হয়েছে, সে ক্ষেত্রে সেই পরীক্ষা বাতিল হবে। কোনো অবস্থাতেই যদি প্রমাণ হয়, আমরা বাতিল করবো।

তবে এর আগে বিভিন্ন সময় প্রশ্ন ফাঁসের যে অভিযোগ উঠেছে তা উড়িয়ে দিয়ে সচিব বলেন, বেশিরভাগ ক্ষেত্রে ভুয়া প্রশ্ন পাওয়া গেছে। আর ফাঁস হলেও প্রশ্ন সেট বদল করে পরীক্ষা নেওয়া হয়েছে।

ঢাকা মহানগর পুলিশের যুগ্ম কমিশনার শেখ নাজমুল আলম বলেন, সামনে নির্বাচনী বছরে সরকারকে বিব্রত করার জন্য নানা রকম কাজ করা হতে পারে। মোবাইল ব্যবহারের ক্ষেত্রে শিক্ষকরা বারবার নিয়ম ভাঙছেন।

বিকাশের মাধ্যমে অস্বাভাবিক লেনদেনে সন্দেহ হলে পুলিশকে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য নির্দেশ দেন সচিব।

কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আলমগীর, বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি, শিক্ষা বোর্ডগুলোর চেয়ারম্যান সভায় উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুনঃ

এসসিতে আধঘণ্টা আগে না গেলে বাদ পড়বে পরীক্ষার্থী