gst apply online

গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষার আবেদন প্রক্রিয়া ২০২১ দেখে নিন। ২০টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় একসাথে হয়ে গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষার আয়োজন করেছে এবার। গত বছরের ডিসেম্বরে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মিজানুর রহমান আহবায়ক হয়ে একটি বৈঠকে প্রস্তাবটি উথ্বাপন করেন এবং ১৯টি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যরা গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা নিতে সম্মত হয়, পরে পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ও যোগদান করে।

গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি ২০২১

২০২১ সালের শুরুতেই গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়। বিজ্ঞপ্তিতে আবেদন প্রক্রিয়া থেকে ভর্তি পরীক্ষার ধরণসহ সবকিছু বিস্তারিত বিবরণ দেয়া হয়েছে।

Guccho Admission Result 2021

প্রাথমিক আবেদন
তারিখঃ ০১-০৪-২০২১ থেকে সরকার ঘোষিত চলমান লকডাউন শেষ হওয়ার পরবর্তী ১০ দিন পর্যন্ত চলবে।

আবেদনের যোগ্যতা 

২০১৭/১৮ সালে মাধ্যমিক/সমমান এবং ২০১৯/২০ সালে উচ্চ মাধ্যমিক / সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষার জন্য আবেদন করতে পারবে।

ইউনিট ভেদে প্রয়োজনীয় গ্রেডিং পয়েন্টের সামান্য তারতম্য অবশ্য রয়েছে,

  • এ ইউনিট (বিজ্ঞান)  – মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক উভয় পরীক্ষায় (৪র্থ বিষয়সহ) ন্যূনতম জিপিএ ৩.৫০ সহ সর্বমােট জিপিএ ৮.০০ থাকতে হবে।
  • বি ইউনিট (মানবিক) – মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক উভয় পরীক্ষায় (৪র্থ বিষয়সহ) ন্যূনতম জিপিএ ৩.৫০ সহ সর্বমােট জিপিএ ৭.০০ থাকতে হবে।
  • সি ইউনিট (বানিজ্য) – মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক উভয় পরীক্ষায় (৪র্থ বিষয়সহ) ন্যূনতম জিপিএ ৩.৫০ সহ সর্বমােট জিপিএ ৭.৫০ থাকতে হবে।
২১-০৪-২০২১ তারিখ থেকে নিম্নের যোগ্যতা সম্পন্ন ছাত্র ছাত্রী আবেদন করতে পারবে
ইউনিট-A (বিজ্ঞান শাখা) বিজ্ঞান, মাদ্রাসা (বিজ্ঞান), ভোকেশনাল (এইচএসসি) ২০১৭, ২০১৮ সালে এসএসসি/সমমান ও ২০১৯, ২০২০ সালে এইচএসসি/সমমান উভয় পরীক্ষায় (৪র্থ বিষয়সহ) ন্যূনতম জিপিএ ৩.৫০সহ সর্বমোট জিপিএ ৮.০০ থাকতে হবে।
ইউনিট-B (মানবিক শাখা) মানবিক, মাদ্রাসা (সাধারণ, মুজাব্বিদ), সংগীত, গার্হস্থ্য অর্থনীতি, ইসলামিক স্টাডিস ২০১৭, ২০১৮ সালে এসএসসি/সমমান ও ২০১৯, ২০২০ সালে এইচএসসি/সমমান উভয় পরীক্ষায় (৪র্থ বিষয়সহ) ন্যূনতম জিপিএ ৩.০০সহ সর্বমোট জিপিএ ৬.০০ থাকতে হবে।
ইউনিট-C (বাণিজ্য শাখা) বাণিজ্য, ডিপ্লোমা ইন বিজনেস স্টাডিজ, এইচএসসি (ব্যবসায় ব্যবস্থাপনা), ডিপ্লোমা ইন কমার্স ২০১৭, ২০১৮ সালেএসএসসি/সমমান ও ২০১৯, ২০২০ সালে এইচএসসি/সমমান উভয় পরীক্ষায় (৪র্থ বিষয়সহ) ন্যূনতম জিপিএ ৩.০০সহ সর্বমোট জিপিএ ৬.৫০ থাকতে হবে।

গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষার আবেদন করার নিয়ম

গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষার আবেদন দুটো ধাপে অনুষ্ঠিত হবে।

প্রাথমিক ধাপে আবেদন করার পর বাছাইয়ে টিকলে চূড়ান্ত আবেদন করে ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ পাওয়া যাবে।

প্রাথমিক আবেদন করতে প্রথমেই  জিএসটি (জেনারেল সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি)  – এর ওয়েবসাইটে ঢুকতে হবে।

  1. জিএসটি- এর ওয়েবসাইটে ঢুকতে যে কোন ব্রাউজারের এড্রেস বারে গিয়ে http://gstadmission.ac.bd টাইপ করে এন্টার চাপতে হবে।
  2. ওয়েবসাইটে ঢোকার পর প্রথমেই ভর্তি বিজ্ঞপ্তিটি মনোযোগ দিয়ে এক-দুইবার পড়ে নেয়া যেতে পারে।
  3. পড়ার পর নিচের দিকের ‘Apply Now’ বাটনে ক্লিক করলে ভর্তি ফরম সদৃশ একটি পাতা দেখাবে।
  4. অনলাইন ভর্তি ফরমটিতে এইচএসসি পরীক্ষার রোল নং, রেজিঃ নং, পাসের সন এবং শিক্ষা বোর্ড পূরণ করতে হবে।
  5. একই ভাবে এসএসসি পরীক্ষার রোল নং, রেজিঃ নং,  পাসের সন এবং শিক্ষা বোর্ড পূরণ করতে হবে।
  6. সকল তথ্য সঠিক ভাবে প্রদান করে সাবমিট বাটনে ক্লিক করলে শিক্ষার্থীর নাম, পিতা মাতার নাম, পাসকৃত স্কুল/কলেজ, ঠিকানা, পরীক্ষার ফলাফল সহ যাবতীয় সার্টিফাইড তথ্য স্ক্রিনে দেখাবে।
  7. সবকিছু ঠিক থাকলে নীচে ‘Apply’ বাটনে ক্লিক করলে কনফার্মেশন আসবে যে প্রাথমিক আবেদন প্রক্রিয়া সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে।

আবেদনের সময় খুবই সচেতন ভাবে তথ্য প্রদান করতে হবে যাতে ভুল না হয়। প্রদানকৃত তথ্য অনুযায়ী শিক্ষাবোর্ডের ডাটাবেসে থাকা ফলাফলের ভিত্তিতেই প্রাথমিকভাবে বাছাই করা হবে যারা ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবে বাছাইয়ের পর।

প্রাথমিক ধাপে আবেদন তালিকা থেকে একটা নির্দিষ্ট সংখ্যক শিক্ষার্থী বেছে নেয়া হবে ভর্তি পরীক্ষার জন্য, তাদের রোল নং জিএসটি-র ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে।

বাছাইকৃত শিক্ষার্থীরাই শুধুমাত্র চূড়ান্ত ভর্তি পরীক্ষার জন্য আবেদন করে ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবে৷ 

প্রাথমিক বাছাইয়ের প্রক্রিয়া

প্রাথমিক বাছাইয়ের জন্য ছয়টি বিষয় নিচের ক্রমানুসারে বিবেচনায় নেয়া হবে,

  • চতুর্থ বিষয়সহ উচ্চ মাধ্যমিক  ৬০% এবং মাধ্যমিক ৪০% গ্রেড পয়েন্টের সমষ্টি
  • চতুর্থ বিষয়সহ উচ্চ মাধ্যমিক ৬০% এবং মাধ্যমিক ৪০% নম্বরের যোগফল
  • উচ্চ মাধ্যমিকে পদার্থবিজ্ঞানে প্রাপ্ত গ্রেড পয়েন্ট
  • উচ্চ মাধ্যমিকে পদার্থবিজ্ঞানে প্রাপ্ত নম্বর
  •  উচ্চ মাধ্যমিকে রসায়নে প্রাপ্ত গ্রেড পয়েন্ট
  • উচ্চ মাধ্যমিকে রসায়নে প্রাপ্ত নম্বর

(বানিজ্য ও মানবিক শাখার জন্য পদার্থ ও রসায়নের পরিবর্তে বাংলা ও ইংরেজী বিষয়ের গ্রেড ও নম্বর বিবেচনা করা হবে।)

প্রাথমিক বাছাইয়ের ফলাফল

প্রাথমিক বাছাইয়ের আবেদন করা যাবে ১-১৫ এপ্রিলের মধ্যে, ২৩ এপ্রিল ওয়েবসাইটে ফলাফল প্রকাশিত হবে।

GST Admission Eligible List

চূড়ান্ত আবেদন

প্রাথমিক বাছাইয়ে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা ২৪ এপ্রিল থেকে ২ মে পর্যন্ত চূড়ান্ত আবেদন এবং ১ মে থেকে ১০ মে পর্যন্ত প্রবেশপত্র ডাউনলোডের সুযোগ পাবে৷ প্রাথমিক বাছাইয়ের মেধাতালিকায় থাকার পরেও যদি কেউ নির্দিষ্ট সময়ে চূড়ান্ত আবেদন করতে ব্যর্থ হয়, তবে তার জায়গায় প্রাথমিক বাছাইয়ে পরবর্তী মেধাতালিকায় থাকা শিক্ষার্থী চূড়ান্ত আবেদন ও ভর্তি পরীক্ষার সুযোগ পাবে।

প্রাথমিক বাছাইয়ে টিকে যাওয়ার পর চূড়ান্ত আবেদনের জন্য ওয়েবসাইটে পরবর্তী সময়ে নির্দেশনা দিয়ে দেয়া হবে। তবে চূড়ান্ত আবেদন করার পর নির্দিষ্ট ইউনিটের নির্ধারিত ফি (৫০০ টাকা) মোবাইল ব্যাংকিং (বিকাশ/রকেট/নগদ) এর মাধ্যমে প্রদান করতে হবে।

সর্বশেষ এডমিট কার্ড এর পিডিএফ ফাইলটি ডাউনলোড করে তা অন্তত দুই বা ততোধিক কপি  প্রিন্ট করে নিতে হবে। 

পরীক্ষা ও ফলাফল এর সময়সূচী

প্রতিটি ইউনিটের পরীক্ষা দুপুর ১২.০০ টায় শুরু হয়ে ১.০০ টায় শেষ হবে এবং পরীক্ষার পূর্ণমান ১০০।

A ইউনিট  (বিজ্ঞান)- ১৯ জুন, ২০২১

B ইউনিট (মানবিক)- ২৬ জুন, ২০২১

C ইউনিট (বানিজ্য)- ০৩ জুলাই, ২০২১ 

যদিও ফলাফলের তারিখ এখনো ঘোষণা করা হয়নি, তবে ভর্তি পরীক্ষা শেষ হওয়ার সংক্ষিপ্ততম সময়ের মধ্যে ফলাফল প্রকাশ করা হবে বলে ধারণা করা যায়।

বিজ্ঞপ্তিতে আবেদন প্রক্রিয়া লেখা থাকলেও এখানে সহজ ভাষায় বর্ণনা করা হয়েছে।  আশা করি আপনারা কোন ঝামেলা ছাড়াই আবেদন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে সফল হবেন।

I hope you are enjoying this article. Thanks for visiting this website.